মাত্র ৮ টি উপায়ে আপনি হয়ে উঠুন সেরাদের সেরা - ফিনটেক বাংলা
You are here
Home > অন্যান্য > মাত্র ৮ টি উপায়ে আপনি হয়ে উঠুন সেরাদের সেরা

মাত্র ৮ টি উপায়ে আপনি হয়ে উঠুন সেরাদের সেরা

কর্পোরেট অফিসের পরিবেশ খুব দ্রুতই পরিবর্তন হয়ে থাকে। আজকে হয়তো নতুন কোনো নিয়ম চালু হলো, কাল হয়তো সেটা আরেকভাবে উপস্থাপিত হলো। শীত কিংবা গ্রীস্ম – যেটাই হোক না কেন, প্রতিদিন সকালে আপনাকে সুন্দরভাবে সেজেগুঁজে অফিসে আসতেই হয়। কখনো কখনো ক্লাইন্ট সার্ভিস দিতে হয়, কখনোবা নতুন কোনো এসাইনমেন্ট নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়তে হয়। এই ব্যাপারে নিঃসন্দেহে আপনি একজন স্মার্ট, কর্মঠ এবং সর্বোপরি সেরা কর্পোরেট অফিসার। কিন্তু আপনি নিশ্চয়ই চান অন্যদের চেয়ে একটু আলাদাভাবে নিজেকে আপনি উপস্থাপন করবেন। তবে তাই হোক, আপনিও হয়ে উঠতে পারেন সেরাদের সেরা মাত্র ৮ টি উপায়ে।

১) “আমি পারি না” থেকে “আমি পারি” তে আসুন

 

আপনি অবশ্যই একজন সৃজনশীল হয়ে উঠতে পারেন যদি আপনি নিজে থেকে চান। নিজের উপর আস্থা রাখুন এবং যেই ধরণের কাজই আপনি করেন না কেন, স্বাগত জা

 

নান। কাজকে ভয় না পেয়ে চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করুন।

২) সমস্যা সমাধানে নিজেকে বেগবান করুন

মানসিক চিন্তাশক্তিকে একীভূত করুন। হতাশ হয়ে যাবেন না সমস্যা যদি হয়ে থাকে। ঠান্ডা মাথায় সমাধানে আসুন। কাজটি যদি ঠিকমতো সমাধান না হয়ে থাকে, তবে নতুন পদ্ধতি ব্যবহার করে কাজটি নিয়ে অগ্রসর হোন। সফলতা আসবেই।

৩) সহযোগী হোন এবং একসাথে কাজ করুন

মনে রাখবেন, একা একা কেউ কোনো সৃজনশীল কাজ করতে পারে না, আর পারলেও তা আশানুরূপ হয়ে ওঠে না। সবাই মাইল কাজ করুন। সবার চিন্তাশক্তিকে একীভূত করে এগিয়ে চলুন। সফল আপনি হবেনই।

৪) নিজেকে দুর্বল ভাবা থেকে বিরত থাকুন

নিজেকে অন্যদের চেয়ে দুর্বল ভাবার কিছু নেই। সাময়িকভাবে আপনার চেয়ে হয়তো কেউ এগিয়ে আছে, তাই বলে আপনি যে পারবেন না – তা ভাববেন না। নিজের উপর আস্থা রাখুন এবং আপনার সৃজনশীল চিন্তাভাবনাকে প্রাধান্য দিন। আপনার সৃজনশীলতা আপনাকে নিয়ে যাবে অনেকদূর।

৫) সমস্যা খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন

প্রথমেই ভাবুন, আপনার ইনোভেটিভ সলিউশনের পণ্য কেন কিনবেন? আপনার পণ্যটি কেনার আগে ভালো করে কারণ গুলি আপনার গ্রাহককে জানান এবং সেটা জানানোর আগে আপনার সহকর্মী কিংবা আপনার অফিসের ব্যবস্থাপনা পর্ষদে আপনার আইডিয়াটা শেয়ার করুন। এবং শেষে আপনার গ্রাহককে বুঝিয়ে দিন সে পণ্যটি কিনুক বা না কিনুক।

৬) ঝুঁকি নিন এবং প্রস্তুত থাকুন ব্যর্থতার প্রতি

কাজের মধ্যে ঝুঁকি নিতেই হয়। ঝুঁকি আছে বলে পিছিয়ে যাবেন – সেটা হবে বড় ভুল। বরং ভাবুন, ভুল থেকেই আপনি শুরু করবেন নতুনভাবে। ভুল হতেই পারে, আর ভুল থেকে শিক্ষা নেয়াটাও একজন সফল ব্যক্তিত্বের পরিচয়। থমাস আলভা এডিসনের সেই বিখ্যাত উক্তিটি মনে রাখবেন, “আমি ব্যর্থ হয় নি। শুধু ১০,০০০ সিস্টেম রয়েছে যেগুলো কাজ করবে না”।

৭) ব্রেইন কে শান্ত রাখুন

ব্রেইনের উপর কখনো চাপ নেবেন না।  মনে রাখবেন, এটি আপনার ব্রেইন, কোনো প্রেসার কুকার নয়। আপনার কাজটি হয়তো প্রথমে সফল নাও হতে পারে, তাই বলে বিচলিত হওয়ার কিছু নেই। আপনি যত মাথা ঠান্ডা রাখবেন, আপনার সৃজনশীল কাজ ততটাই প্রস্ফুটিত হবে।

৮) আগ্রহী মনোভাব গড়ে তুলুন

যেই কাজটি করুন না কেন, সেটার সম্পর্কে আগ্রহী হয়ে উঠুন। জানার চেষ্টা করুন পরিপূর্ণভাবে। জেনে নিয়ে কাজে হাত দিন। মনে রাখবেন, আপনি যদি অনাগ্রহ প্রকাশ করেন, কিংবা নিরাশ হয়ে থাকেন, তাহলে কখনোই আপনি আপনার কাজে এবং অফিসে ইমপ্রেস করতে পারবেন না।

আসলে আপনি নিজেই কিন্তু আপনার মনের বড় কারিগর। কেউ পরিবর্তন করতে পারবে না যদিনা আপনি নিজে থেকে পরিবর্তিত হতে চান। কাজেই মুক্ত চিন্তার অধিকারী হোন, ঠান্ডা মাথায় কাজ করে যান আর সৃজনশীলতায় ধ্যান দিন – কেননা, সৃজনশীলতা বুদ্ধিমত্তার চাইতেও বড় ব্যাপার।

মন্তব্য করুন

Top